ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় ২০২৩। How to Make Money on YouTube in 2023

টেকনোলজি যত উন্নত হচ্ছে মানুষ ততই বেশি অনলাইন ভিত্তিক হয়ে যাচ্ছে তাই বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম হচ্ছে ইউটিউব আর এই ইউটিউবের মাধ্যমেই ইনকাম করা যাচ্ছে প্রতিমাসে লক্ষাধিক টাকা। তাই আপনি যদি অনলাইন থেকে ইনকাম করার কথা ভেবে থাকেন তাহলে আজকের এই নিবন্ধনটি শুধুমাত্র আপনার জন্য। আজকের এই নিবন্ধনে ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় সম্পর্কে জানাবো।

তাই আপনি যদি আসলেই অনলাইন থেকে উপার্জন করতে চান তাহলে বর্তমান সময়ের অনলাইন থেকে আয় করার সবচেয়ে বড় মাধ্যম হতে পারে ইউটিউব আর এই ইউটিউব কে কাজে লাগিয়ে প্রতিনিয়ত হাজার হাজার তরুণ তরুণী প্রতিমাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে।

আরো পড়ুনঃ অনলাইন থেকে আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

বর্তমান সময়ে ইউটিউব থেকে আয় করার কয়েকটি উপায় রয়েছে তার মধ্য থেকে youtube থেকে আয় করার ৫টি সহজ উপায় আপনাদের মাঝে শেয়ার করব। আর এই উপায় গুলো মেনে আপনি যদি ইউটিউবে কাজ করতে পারেন তাহলে খুবই অল্প সময়ের মধ্যে ভালো পরিমাণে একটা ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন প্রতিমাসে।

আর কথা না বাড়িয়ে ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় ২০২৩। How to Make Money on YouTube in 2023

ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় ২০২৩

ইউটিউব থেকে আয় করার সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম, একই সাথে প্রোডাক্ট রিভিউ ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, স্পন্সরড কনটেন্ট, অনলাইন কোর্স এবং ভিডিও এডিটিং সার্ভিস দিয়েও ইউটিউব থেকে মাসে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করা যায়।

আরো পড়ুনঃ অনলাইনে ভিডিও দেখে ইনকাম করার উপায়

চলুন আমরা আজকের এই নিবন্ধনে ইউটিউব থেকে আয় করার এই পাঁচটি সহজ উপায় সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানবো এবং কিভাবে এই পাঁচটি উপায় কাজে লাগিয়ে আপনি ইউটিউবে ভিডিও করবেন সেই বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিব।

ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম থেকে আয়

বর্তমান সময়ে ইউটিউব থেকে আয় করার সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম বা গুগলের বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইনকাম। ঠিকই শুনেছেন ইউটিউবের পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হওয়ার মাধ্যমে এডসেন্স থেকে প্রতি মাসে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করতে পারবেন।

See also  অনলাইন থেকে আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় - অনলাইনে ইনকাম করার 100 টি সহজ উপায়

তবে ইউটিউবের এই পার্টনার প্রোগ্রামে যুক্ত হতে আপনাকে কিছু রিকোয়ারমেন্ট ফিলআপ করতে হবে যেগুলো ছাড়া আপনি কোনভাবেই ইউটিউব এর পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হতে পারবেন না বা এডসেন্স একাউন্টের এপ্রুভাল নিতে পারবেন না। ইউটিউবের পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হতে হলে কয়েকটি নির্দেশনা মানতে হবে চলুন নির্দেশনা গুলো দেখে আসি।

  • ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হতে লাস্ট ৩৬৫ দিনে চ্যানেলে ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার থাকতে হবে।
  • লাস্ট ৩৬৫ দিন বা বারো মাসের মধ্যে ৪,০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম থাকতে হবে
  • কোন প্রকার কপিরাইট স্ট্রাইক থাকা যাবে না।
  • কোন প্রকার কপিরাইট কনটেন্ট থাকা যাবে না।
  • অবশ্যই মানসম্মত ভিডিও হতে হবে।
  • ভিডিওতে কোন অশ্লী*ল দৃশ্য দেখানো যাবে না।
  • ভিডিওর মধ্যে কোন ব্যক্তিকে কটুক্তি করে কথা বলা যাবে না।
  • অবশ্যই লিগাল ভিডিও হতে হবে এবং নিজের কনটেন্ট হতে হবে।

উপরে বলার নিয়ম গুলো ফলো না করলে আপনি ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হতে পারবেন না তাই ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হয়ে youtube থেকে ইনকাম করার জন্য উপরের নির্দেশনা গুলো অবশ্যই ফলো করতে হবে এবং নির্দেশনা গুলো ফলো করে আপনার যদি লাস্ট ৩৬৫ দিনে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার এবং ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম হয়ে যায় তাহলে আপনি ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম বা ইউটিউব এর জন্য এপ্লাই করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ লুডু খেলে ইনকাম করার করার উপায়

ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম বা মনিটরের জন্য এপ্লাই করার পরে ইউটিউব থেকে আপনার চ্যানেলটি রিভিউ করা হবে এবং চ্যানেলটি রিভিউ করার পরে তারা যদি মনে করে আপনার চ্যানেলটি পার্টনার প্রোগ্রামে নেওয়ার জন্য উপযুক্ত তাহলে আপনাকে মেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দিবে এবং আপনার এডসেন্স একাউন্টটি এক্টিভ করে দেওয়া হবে।

প্রোডাক্ট রিভিউ করে ইউটিউব থেকে আয়

বাজারে নতুন কোন পণ্য আসলে সেটি সম্পর্কে বিস্তারিত ডিটেইলস জানার জন্য আমরা প্রতিনিয়ত গুগলে অথবা ইউটিউবে সার্চ করে থাকি আর এই সকল ইউজারদের কাজে লাগিয়ে প্রোডাক্ট রিভিউ করে ভিডিও কনটেন্ট পাবলিশ করার মাধ্যমে ইউটিউব থেকে প্রচুর টাকা উপার্জন করা যায়।

মনে করেন আপনি একটি মোবাইল রিভিউ করলেন এরপরে একজন ইউজার সেই মোবাইলটি সম্পর্কে ইউটিউবে সার্চ করল সেই মোবাইলটি কেমন সে বিষয়টি জানার জন্য এবং আপনি বুঝতেই পারছেন যে যেহেতু ইউজারটি মোবাইল সম্পর্কে জানার জন্য ইউটিউবে ভিডিও দেখছে তাহলে অবশ্যই সে একজন মোবাইল ক্রেতা বা মোবাইল কিনবে।

See also  লুডু খেলে ইনকাম করার করার উপায় - Earn Money From Ludo Game

আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আপনার ইউটিউব ভিডিওতে একটি মোবাইল অথবা যেকোনো পণ্য রিভিউ করার মাধ্যমে পণ্যের ভালো দিকগুলো এবং মন্দ দিকগুলো প্রকাশ করে গ্রাহক দের মাঝে ইউটিউব ভিডিও ডেসক্রিপশন বক্সে অথবা কমেন্ট বক্সে প্রোডাক্ট এর লিঙ্ক দিয়ে দিতে পারবেন এবং ওই লিংকে গিয়ে যদি কোন ইউজার একটি ফোন ক্রয় করে তাহলে সেটি থেকে আপনি কমিশন পাবেন ব্যাপারটি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর পর্যায়ে পড়ে যায়।

এখানে কথা হচ্ছে আপনি ইউটিউবে পণ্য রিভিউ এর জন্য ভিডিও তৈরি করবেন এবং ডেসক্রিপশন বক্সে ওই পণ্য কেনার জন্য লিংক দিয়ে দিবেন তাহলেই ইউজাররা সেখান থেকে পণ্য কিনবে এবং আপনি একটি এফিলিয়েট কমিশন পেয়ে যাবেন।

স্পন্সরড কনটেন্ট দিয়ে ইউটিউব থেকে আয় 

হ্যাঁ আপনি ঠিকই শুনেছেন স্পন্সর কন্টেন্টের মাধ্যমেও ইউটিউব থেকে ইনকাম করা সম্ভব। স্পন্সর কনটেন্ট বলতে আপনার চ্যানেলে যদি হিউজ পরিমানে সাবস্ক্রাইবার থাকে এবং আপনার কন্টেন্ট গুলো যদি অল্প সময়ের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় এরকম চ্যানেল হয়ে থাকে তাহলে অনেক কোম্পানি আপনার ভিডিওর মাধ্যমে তার প্রোডাক্ট অথবা তার সার্ভিসকে স্পন্সর করতে পারে।

যেমন আপনার content যদি কোন একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রিলেটেড হয় বা শিক্ষা রিলেটেড হয় তাহলে শিক্ষামূলক যে সকল কোর্স রয়েছে সেই সকল কোর্সগুলো সেল দেওয়ার জন্য অনেক লোক আপনাকে স্পন্সর করবে এবং টাকার বিনিময়ে তাদের কোর্সগুলো সম্পর্কে একটি রিভিউ দিতে বলবে এবং পোস্টটি কেনার জন্য ইউজারদেরকে আগ্রহ দেখাতে বলবে।

অথবা আপনার যদি কোন মোবাইল অথবা ল্যাপটপ রিভিউ রিলেটেড ইউটিউব চ্যানেল হয়ে থাকে তাহলে বিভিন্ন দোকান অথবা বিভিন্ন শোরুম থেকে আপনাকে স্পন্সর করা হবে এবং সেই স্পন্সর অনুযায়ী আপনাকে অর্থ প্রদান করবে এবং তাদের প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভালো একটি ভিডিও দেওয়ার মাধ্যমে আপনাকে তারা অর্থ প্রদান করবে।

অনলাইন কোর্স সেল করে ইউটিউব থেকে আয় 

ইউটিউবে অনলাইন কোর্স সেল করেও প্রতি মাসে লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব শুনতে অবাক লাগলেও মনে করেন আপনি যদি কোন একটা অনলাইন ভিত্তিক কাজের উপর পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি ওই কাজের উপর একটি কোর্স তৈরি করতে পারেন এবং আপনার করানো কোর্স আপনার সাবস্ক্রাইবারদের মাঝে সেল করতে পারেন।

See also  অনলাইনে ভিডিও দেখে ইনকাম করার উপায়। Watch Video And Earn Money Online

মনে করেন আপনার youtube চ্যানেলটি যদি শিক্ষা রিলেটেড হয় তাহলে শিক্ষামূলক বর্তমান সময়ে প্রচুর পরিমাণে কোর্স রয়েছে সেই কোর্সগুলো বিক্রি করতে পারেন অথবা আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি যদি টেকনোলজি সম্পর্কিত হয় মানে টেকনোলজি সম্পর্কিত হয় মানে ভিডিও এডিটিং গ্রাফিক্স ডিজাইন ওয়েব ডিজাইন সহ নানা ধরনের কোর্স ভিত্তিক হয়ে থাকে তাহলে এই সকল কাজে যদি আপনি পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে একটি কোর্স বানিয়ে আপনার সাবস্ক্রাইবারদের মাঝে এটি বিক্রি করতে পারেন।

ভিডিও এডিটিং সার্ভিস দিয়ে ইউটিউব থেকে আয় 

আপনি যদি ভাল ও উন্নত মানের ভিডিও আপনি যদি ভাল ও উন্নত মানের ভিডিও এডিটিং করা সম্পর্কে জানেন বা ভিডিও এডিটিং সম্পর্কে পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার দক্ষতা অন্যদের মাঝে শেয়ার করার জন্য ভিডিও এডিটিং সার্ভিস অথবা ভিডিও এডিটিং কোর্স হিসেবেও সেল করতে পারেন।

আপনার চ্যানেলটি যদি টেকনোলজি সম্পর্কিত হয় তাহলে ভিডিও এডিটিং সার্ভিস দেওয়া আপনার জন্য অনেক বেশি সহজ হয়ে যাবে কারণ টেকনোলজি সম্পর্কে যারা আপনাকে ফলো করবে তারাই মূলত এইসব বিষয়ের দিকে বেশি আগ্রহ প্রকাশ করবে আর এই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে আপনার দক্ষতা অন্যদের মাঝে শেয়ার করে ভিডিও এডিটিং কোর্স বানিয়ে ইউজারদের মাঝে সেল করতে পারেন।

ইউটিউব থেকে আয় করার সম্পর্কে আমাদের মন্তব্য 

সম্মানিত পাঠকবৃন্দ আমাদের আজকের নিবন্ধনে ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় সম্পর্কে আলোচনা করেছি আশা করি এই ৫ টি উপায় আপনার কাছে ভালো লেগেছে। বর্তমান সময়ে যারা ইউটিউবে সফলতা অর্জন করেছে তাদের বেশিরভাগ লোকেদের কেই দেখবেন এই সার্ভিসগুলোই তারা প্রদান করছে এবং এই কাজগুলোই তারা করছে আর এই জন্যই তারা বর্তমান সময়ে ইউটিউবে একটা ভালো অবস্থান করে নিয়েছে এবং ভালো একটা পর্যায়ে চলে গিয়েছে।

তাই আপনার মাঝেও যদি ইউটিউব থেকে আয় করার চিন্তা-ভাবনা থেকে থাকে তাহলে উপরে দেখানো উপায়গুলো ফলো করতে পারেন আশা করি এই উপায় গুলো ফলো করতে পারলে আপনি ইউটিউব থেকে মাসে লক্ষাধিক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন থেকে ইনকাম সম্পর্কিত নিত্যনতুন আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন আমরা প্রতিনিয়ত অনলাইন ইনকাম সম্পর্কিত আর্টিকেল প্রকাশ করে থাকি যেখান থেকে আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করার উপায় জানতে পারবেন এবং অনলাইন থেকে ইনকাম করে বিকাশে কিভাবে টাকা নিবেন এই বিষয়গুলো জানতে।

এতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

About nidgov

আমি গত ৫ বছর থেকে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কাজ করেছি। আমি আমার স্নাতক শেষ করেছি হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। আমার বিষয় ছিলো কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং (ইঞ্জি.)।

View all posts by nidgov →