যারা এখনো স্মার্ট কার্ড পাননি তারা জেনে নিন কখন কিভাবে পাবেন

যারা এখনো স্মার্ট কার্ড হাতে পাননি তারা জেনে নিন কখন কিভাবে কার্ড হাতে পাবেন।

আপনি ১০ আঙুলের ছাপ এবং আইরিশের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে পেতে পারেন আপনার মূল্যবান স্মার্ট ভোটার আইডি কার্ড।

নিবন্ধন করার সকল প্রসেস ঠিক থাকা সত্বেও, অনেকেই তাদের NID Smart Card হাতে পায়নি।

সব কিছু ঠিকঠাক থাকা সত্বেও স্মার্ট কার্ড আসতে এতো দেরি হচ্ছে কেনো?- এই বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর চেষ্টা করবো।

২০২৩ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমান বাংলাদেশে প্রায় সাড়ে ৭ কোটি ভোটার এখনোও তাদের NID Smart Card হাতে পায়নি।সরকারি বিভিন্ন সমস্যার কারনে আইডি কার্ড পেতে সমস্যা হচ্ছে

তবে বর্তমানে অনলাইন থেকেই দেখতে পারবেন আপনার Smart Card প্রস্তুত হয়েছে কিনা।

আর যারা সদ্য নতুন ভোটার হয়েছেন তারা কিন্তু স্মার্ট কার্ড পাবেন না।তবে আপনি যদি আইডি কার্ড ব্যবহার করতে চান তাহলে অনলাইনে লেমিনেটেড আইডি কার্ড বের করে কাজ চালাতে পারেন।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড

এখন জানুন আপনাদের মধ্যে কারা কেনো স্মার্ট কার্ড পায়নি

যারা ২০১৬ সালের আগে ভোটার হয়েছেন

মূলত স্মার্ট কার্ড কিন্তু ২০১৬ সালের আগে দেওয়া হতো না।তখন টেম্পোরারি বা লেমিনেটেড আইডি কার্ড ব্যবহার করা হতো।

লেমিনেটেড ভোটার আইডি কার্ড দেওয়ার কারনে নিবন্ধনের জন্য ভোটারদের ১০ আঙ্গুলের ছাপ,চোখের আইরিশ, ব্লাডগ্রুপের তথ্য নেওয়া হতো না।

কিন্তু বর্তমানে NID Smart Card এ ১০ আঙ্গুলের ছাপ,চোখের আইরিশ ব্লাডগ্রুপের তথ্য ছাড়া প্রিন্ট করা যায় না।

তাই ২০১৬ সালের পূর্বে যারা ভোটার হয়েছেন তাদের আইডি কার্ডের এই জামেলার জন্য তারা স্মার্ট কার্ড হাতে পাচ্ছে না।

এই অবস্থায় আপনার করণীয় কি?- আপনার যদি জরুরি অবস্থায়

NID Smart Card প্রয়োজন হয় তাহলে আপনি আপনার উপজেলা নির্বাচন অফিসে এই বিষয়ে যোগাযোগ করতে পারেন।

যদি সেখানেও কাজ না হয় তাহলে তাহলে আপনি প্রধান নির্বাচন অফিস গিয়ে ১০ আঙ্গুলের ছাপ, চোখের আইরিশ এবং ব্লাডগ্রুপের তথ্য দিয়ে NID Smart Card এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

See also  ভোটার এলাকা পরিবর্তন করার সহজ নিয়ম

যারা ২০১৬ সালের পরে ভোটার হয়েছেন

২০১৬ সালের প্রায় অধিকাংশ ভোটারই NID Smart Card হাতে পেয়েছে। তবে কিছু কিছু মানুষ ২০১৬ সালের পর ভোটার হওয়া সত্বেও এখনোও হাতে স্মার্ট কার্ড পায়নি।

স্মার্ট কার্ড হাতে না পাওয়া মূলত ২টি কারন হলোঃ- ১.ভুল তথ্য। ২.প্রিন্ট জটিলতা।

ভুল তথ্য যেমন, ব্লাডগুরুপ, নাম,ঠিকানা অথবা অন্য কোনো প্রয়োজনীয় তথ্যের কারনে আইডি কার্ড পেতে দেরি হচ্ছে।

এছাড়াও ২০১৬ সালের মধ্যে সরকার সিদ্ধান্ত নিসিলো সকল নাগরিকের NID Smart Card নিশ্চিত করবে। কিন্তু কাঁচামাল,প্রযুক্তিগত সমস্যা, সামার্থ ইত্যাদি কারনে তার আর হয়ে উঠে নাই।

আর এই কারনেও আপনার স্মার্ট কার্ড পেতে দেরি হচ্ছে।

স্মার্ট কার্ড কখন পাবেন

আপনি ঘরে বসেও মোবাইলের মাধ্যমে SMS অথবা অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজেই কখন স্মার্ট কার্ড হাতে পাবেন তা জানতে পারবেন।

২.SMS দিয়ে স্মার্ট কার্ড চেক করতে মোবাইলের মেসেজ অপশনে SC NID NID-No লিখে 105 নম্বরে send করুন।পরবর্তীতে আপনার মোবাইণর মেসেজে দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার আইডি কার্ডের তথ্য।

শেষ কথা

আপনার যদি জরুরি ভিত্তিতে স্মার্ট কার্ড লাগে তাহলে অনলাইনের মাধ্যমে লেমিনেটেড আইডি কার্ড বের করে আপনার কাজ চালাতে পারেন।

এছাড়াও যারা এখনো স্মার্ট কার্ড পাননি তারা অবশ্যই প্রথমে নিজের উপজেলা নির্বাচন অফিসে যোগাযোগ করবেন।

সেখানে না হলে সোজা ঢাকা নির্বাচান অফিসে এসে আপনার সমস্যা সমাধান করবেন।